ঢাবিতে একাডেমিক মাস্টারপ্ল্যান গঠনের আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) একটি ফিজিক্যাল মাস্টারপ্ল্যান হয়েছে৷ আমি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বারবার অনুরোধ করেছি একটি একাডেমিক মাস্টারপ্ল্যান করার জন্য। কারণ, একাডেমিক মাস্টারপ্ল্যান থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈশিষ্ট্য কী হবে, কি কি বিষয় পড়ানো হবে, কেন পড়ানো হবে, সেগুলো ঠিক করা যায়। একাডেমিক মাস্টারপ্ল্যান থাকলে তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে একটি ফিজিক্যাল মাস্টারপ্ল্যানও করা যায়।বুধবার (১০ আগস্ট) বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি প্রাঙ্গণে আয়োজিত উন্মুক্ত বক্তব্য প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক মাস্টারপ্ল্যান না থাকার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অপরিকল্পিতভাবে তাদের সক্ষমতার চেয়ে বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করছে। যে কারণে আবাসন সমস্যাসহ নানাবিদ সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে।
আবাসনের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বহু সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। সেখানে বুলিং হয়, সেখানে র‍্যাগিং হয়। যার কোনটিই কাম্য নয়।বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সম্পর্কে তিনি বলেন, কোনো কষ্টকেই কখনো কষ্ট মনে করেননি তিনি৷ সব কষ্ট মেনে নিয়েছেন। কারণ, তিনি তার স্বামীকে দেশের জন্য বিলিয়ে দিয়েছেন। নিজের গহনা বিক্রি করে সংগঠনের কাজে দিয়েছেন। সংগঠন চালাবার জন্য দিয়েছেন। ষাটের দশকে ছাত্রলীগের নেতারা বঙ্গমাতাকে মা হিসেবে, নেতা হিসেবেই পেয়েছেন।“বঙ্গমাতা, যে মায়ের চির মমতা আমার অঙ্গে মাখা”- শীর্ষক উন্মুক্ত বক্তব্য প্রতিযোগিতায় ১৮টি আবাসিক হল থেকে বাছাই করা এবং আগ্রহী কয়েকটি বিভাগ থেকে মোট ২০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন। প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন ফাতেমা ফারজানা নির্ঝণা।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *