পরীক্ষা না করায় লস্কা সফর দুই দিনের মধ্যে দল ঘোষণা
খেলাধুলা  প্রতিবেদক:
দেশের  লকডাউনের ভেতরেও  নিয়মিত  অফিস  করছেন  বাংলাদেশ জাতীয়  ক্রিকেট  দলের  দুই  নির্বাচক   মিনহাজুল  আবেদিন নান্নু ও হাবিবুল বাশার। গতকাল লকডাউনের  প্রথম  দিন  তাদের  বেশ  কয়েকঘণ্টা কেটেছে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে। আজ মঙ্গলবারও সকালবেলা বিসিবি  কার্যায়ে  উপস্থিত দুই  নির্বাচক।
তাই  এখন তো সব খেলা বন্ধ। জাতীয় দলের ও  কোন কার্যক্রম  নেই। তাহলে  কী কারণে  লকডাউনের  মধ্যেও  পরপর  দুইদিন  সকালবেলা বোর্ডে  যাওয়া?  প্রধান  নির্বাচক  মিনহাজুল  আবেদিন  নান্নুর  জবাব,  উদ্দেশ্য  একটাই-  শ্রীলঙ্কা  সফরের  জন্য টেস্ট  দল  চূড়ান্ত  করা।আজ   সকালে  মুঠোফোনে  নান্নু  জাগো  নিউজকে  জানান,  দল সাজানোর  কাজ  প্রায়  শেষের  পথে।   তবে  আজ  সেই অবস্থান থেকে  সরে এসেছেন তিনি।
নান্নু জানান,   আমরা ১৬-১৭ জনের দল  পাঠানোর কথা  ভাবছি।ফলে  নিউজিল্যান্ডে  তিন  ম্যাচের  ওয়ানডে  ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে দল ফিরে এসেছে দেশে।  সেই  দলের প্রায় অর্ধেক ক্রিকেট লিগের দুই পর্ব হয়ে গেছে। সেখানে ভাল  করা কাউকে বিবেচনায় আনা হবে কি  না? এমন  কৌতূহলি প্রশ্ন আছে  কারও  কারও। তা নিয়ে একটি  কথাও বলেননি প্রধান নির্বাচক।  তবে  বুঝিয়ে  দিয়েছেন, তারা দল নিয়ে বড়  ধরনের পরীক্ষা নিরীক্ষায়  যাবেন না  এখন।  প্রতিষ্ঠিত ও পরীক্ষিত  পারফরমারদের  দিয়েই  দল  সাজানোর চিন্তা চলছে।
এতে  যতদূর জানা গেছে,  যেহেতু  সাকিব নেই, তাই টেস্ট দলে একজন  সিনিয়র ও  অভিজ্ঞ  পারফরমারের  অন্তর্ভুক্তির কথা ভাবা  হচ্ছে।  সে কারণেই  মাহমুদউল্লাহ  রিয়াদ  আবার দলে ফিরতে পারেন। সে ইনজুরির কারণে টি- টোয়েন্টি অধিনায়ক রিয়াদ নিউজিল্যান্ডে  শেষ  ম্যাচ  খেলেননি। বিসিবির  প্রধান  চিকিৎসক  দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন রিয়াদের পায়ের উরুর সামনের  অংশের  মাংসপেশিতে  টান  ছিল।
আর কাঁদের সমস্যার   কারণে  পুরো টি- টোয়েন্টি  সিরিজ খেলা হয়নি আরেক অভিজ্ঞ পারফরমার মুশফিকুর রহিমের।  তাই  দুই  জনের   কী  অবস্থা? তারা  কি  সুস্থ  হয়ে  উঠেছেন?  ফলে  বিসিবি  প্রধান  চিকিৎসক  দেবাশীষ  চৌধুরীর  জবাব,  নাহ!  মুশফিক  আর  রিয়াদ  ছাড়া আর কারও তেমন কোন উল্লেযোগ্য ইনজুরি নেই।
রিয়াদের  ইনজুরিরও  খুব  বড় না। দুজনার কারও ক্ষেত্রেই এমন না যে লম্বাসময় বাইরে থাকতে হবে। কিছু দিন বিশ্রাম নিলেই ভাল হয়ে যাবে। তাই  দেবাশীষ চৌধুরীর  আশা, ফলে যেহেতু  দল  শ্রীলঙ্কা  যাবে ১২  এপ্রিল,  আর  প্রথম  টেস্ট  শুরু ২১ এপ্রিল সব মিলে  হাতে   দুই  সপ্তাহের  বেশি  সময়।
এর  ভেতরে দুজনই সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠবেন।  তাই তাদের দলভূক্তির পথে কোন বাঁধা খুঁজে  পান  না  দেবাশীষ।  তার মানে  ধরেই  নেয়া  যায়,  মুশফিক  আর  রিয়াদ  দুজনই  শ্রীলস্কা  যাচ্ছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *