দেশটির পাকিস্তানে ভ্যাকসিন কিনতে হুড়াহুড়ি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

 

 

দেশটির  পাকিস্তান  এর  বাণিজ্যিক ভাবে ভ্যাকসিন কিনতে প্রথম  কর্মসূচির  প্রথম ধাপে হাজার ও হাজার  মানুষ  মোটা  অঙ্কের টাকা  খরচ করে  ভ্যাকসিন নিচ্ছে । পাকিস্তান এর   সরকারিভাবে বিনাখরচে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। এবং  সারির  স্বাস্থ্যকর্মী  ও  ৫০ বছরের  বেশি  বয়সীদের ।

 

কিন্তু ভ্যাকসিন দেয়ার  এই  গতি  বেশ  ধীর । এই  প্রেক্ষিতে গতমাসে পাকিস্তান সরকার সাধারণ মানুষদের জন্য বেসরকারিভাবে ভ্যাকসিন আমদানির অনুমতি দেয়। বাণিজ্যিকভাবে  বিক্রির  প্রথম ধাপে  রাশিয়ার দেশটির  স্পুটনিক  পাঁচ  ভ্যাকসিন দুই  ডোজ  কেনার  সুযোগ  দেয়া  হয়েছে।

 

এবং   দুই  ডোজ  প্যাকের  মূল্য  রাখা  হয়েছে  বারো  হাজার দেশটির  রুপি।  অতপর গত  সপ্তাহ  থেকে এর  বেসরকারিভাবে ভ্যাকসিন কিনে প্রয়োগের অনুমতি দেয়া হয়েছে। মূল্য চড়া হলেও প্রচুর মানুষ এই ভ্যাকসিন কিনছে।  রোববার করাচির ভ্যাকসিন প্রয়োগ কেন্দ্রগুলোতে গিয়ে দেখা যায়, তাই  সবগুলো  ভ্যাকসিন  ইতোমধ্যে শেষ হয়ে  যায়। । ফলে  এত দাম সত্ত্বেও  এসব  স্থানে  দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করে ভ্যাকসিন নিতে হচ্ছে।

 

করাচির কিছু কেন্দ্রে অনেকের তিন ঘণ্টা পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। এসব ভ্যাকসিন গ্রহীতার অধিকাংশই তরুণ ও যুবক পাকিস্তানী নাগরিক যারা সরকারি নিয়মে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন নেয়ার অনুমতি এখনো পাননি। করাচির একটি ব্যয়বহুল হাসপাতাল থেকে ভ্যাকসিন নিয়ে ৩৪ বছর বয়সী সাদ আহমেদ বলেন, ‘আমি এটা পেয়ে খুবই খুশি কারণ ভ্রমণের জন্য এটা দরকার।’ এবং  বেসরকারি  উদ্যোগে  ভ্যাকসিন প্রয়োগ  শুরু  হলেও  সরকার ও আমদানিকারকদের মধ্যে ভ্যাকসিনের মূল্য নির্ধারণ নিয়ে এখনো  বিতর্ক চলছে ।

 

 

 

পাকিস্তান  সরকার  প্রথমে মূল্য  রাখার  ক্ষেত্রে  আমদানিকারকদের  ছাড়  দিতে  সম্মত  হয়েছিল।  কিন্তু পরে সরকার সর্বোচ্চ  দাম  নির্ধারণের  সিদ্ধান্ত নেয়। ফলে এক ফার্মাসিউটিক্যালস  কোম্পানি  ইতোমধ্যেই   স্পুটনিক  ৫ ভ্যাকসিনের  পঞ্চাচ  হাজার  টিকা  আমদানি  করেছে ।  তারা এই  নিয়ে  আদালতেও  গিয়েছে  ফলে   রায়ে  জয়  পেয়েছে ।  এর  ফলে সরকারের  দ্বারা  মূল্য  নির্ধারণের  আগ  পর্যন্ত ভ্যাকসিনটি বিক্রির  অনুমতি  পেয়েছে  কোম্পানিটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *