পীরগঞ্জে ১০ টাকা কেজি চালের কার্ডে তেলেসমাতি

 

 পীরগঞ্জে ১০ টাকা কেজি চালের কার্ডে তেলেসমাতি

পীরগঞ্জ ঠাকুরগাঁও নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

 

সরকারের গরিব ও হতদরিদ্রবান্ধব ১০ টাকা কেজি দরের চাল নিয়ে আরও অভিযোগ এসেছে। জানা গেছে, চাল বিতরণের রেশন কার্ড নিয়ে প্রভাবশালীসহ চেয়ারম্যান-মেম্বাররা নানা কৌশল অবলম্বন করে ফায়দা লুটছেন।

 

এতে একদিকে হতদরিদ্ররা বঞ্চিত হচ্ছেন, আরেকদিকে মহতী কর্মসূচিটিই মুখ থুবড়ে পড়ছে। এক আওয়ামী লীগ নেতার পরিবারের , চারজনই হতদরিদ্র সেজেছেন বলে জানা গেছে, ঘটনা টি ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ১ নং ভোমরাদহ ইউনিয়নে ১০ টাকা কেজি দরে চাল পাওয়ার কার্ড পেয়েছেন প্রভাবশালী একই পরিবারের চারজন। এরা হলেন মোঃ আরিফ (কার্ড নম্বর ১১১০), মোঃ আমিন (কার্ড নম্বর ১০৫৫), মোছাঃ আরিফা (কার্ড নম্বর ১০৮০), মোঃ আকাশ (কার্ড নম্বর ১০৫৫) এক কার্ড দিয়ে দুই জন চাল তুলছেন কখনো তালিকায় আমিন এর নাম কখনো আকাশের নাম ১০৫৫ এর কার্ডে।

 

কার্ড পাওয়াদের মধ্যে আরও আছেন সচ্ছল আওয়ামী লীগ ও ছাত্ররীগ নেতারা পর্যন্ত। বাদ যাননি চেয়ারম্যান-মেম্বার পরিবারের লোকজনও। উপরের উল্লেখিত চার জন কে কার্ডে দেখানো হয়েছে দিনমজুর তবে তাদের মধ্যে কেউই দিনমজুর নয় এরা হলেন ভোমরাদহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আঃ সালামের তিন ছেলে ও তার স্ত্রী (১১১০ নাম্বার কার্ড ধারী ব্যাক্তি মোঃ আরিফ ভোমরাদহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন।

 

এ পরিবারের বিরুদ্ধে আরো অভিযোগ রয়েছে যে অসহায় দুস্থ মানুষকে বিভিন্ন ভাতার কাড সরকারি ঘড় বরাদ্দ করে দেওয়ার নাম করে টাকা হাতিয়ে নেয়া দলীয় প্রভাব বিস্তার করে নামে বেনামে বিভিন্ন প্রকার অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগ । তবে পরিবার টি প্রভাবশালী হওয়ায় একালাবাসী মুখ খুলতে ভয় পাচ্ছেন।

 

সরকারের গরিব ও হতদরিদ্রবান্ধব ১০ টাকা কেজি দরের চালের ডিলার এর অফিসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ও অভিযোগ রয়েছে । এ উপজেলাই আবার কোথাও কোথাও চালের কার্ড ক্রয় বিক্রিও করা হয়েছে।

 

বিষয় টি পীরগঞ্জ উপজেলার ১নং ভোমরাদহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিটলার হকের কাছে মুঠো ফোনে জানাতে চাওয়া হলে তিনি জানান ৫ বছর আগের কার্ড অনেক কার্ড জাচাই বাছাই করা হয়েছে অনেক কার্ড হয় নি । বদনামতো চেয়ারম্যান মেম্বারদের হয়ে থাকে যারা বড় বড় পোস্টে আছে তারা লুটপাট করে খাচ্ছে তাদের কেউ দেখে না আমরা ছোট খাটো পোস্টে আছি সবাই আমাদের কে দেখে । তালিকা দেখতে হবে ।

 

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার মোঃ রেজাউল করিম বলেন বিষয়টির সত্যতা পেলে আমরা কার্ড গুলো বাতিল করবো । এমন কি যারা বিষয়টির সাথে জরিত তাদের সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *