এক হাজার মেট্রিক টন সুগন্ধি চাল যাচ্ছে বিদেশে

নতুন করে আবার বাংলাদেশ থেকে সুগন্ধি চাল রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। চাল রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান এফসি ট্রেডিং নামে একটি সংস্থাকে এক হাজার মেট্রিক টন সুগন্ধি চাল রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, সম্প্রতি এফসি ট্রেডিং করপোরেশনের মাধ্যমে এ চাল রপ্তানির অনুমোদন দিয়ে প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরে চিঠি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরকে বলা হয়েছে।

সুগন্ধি চাল রপ্তানির ক্ষেত্রে শর্তগুলো হলো, রপ্তানির নীতি ২০১৮-২০২১ অনুসরণ করতে হবে; রপ্তানিযোগ্য সুগন্ধি চাল স্বচ্ছ (ট্রান্সপারেন্ট) প্যাকেটে প্যাকেটজাত করতে হবে; শুল্ক কর্তৃপক্ষ দ্বারা রপ্তানিকরা পণ্যের কায়িক পরীক্ষা করাতে হবে; রপ্তানিকরা সুগন্ধি চাল জাহাজিকরণ শেষে রপ্তানি সংক্রান্ত সংশ্লিষ্ট সব কাগজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে দাখিল করতে হবে। এছাড়া এ অনুমতির মেয়াদ ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে সাকিন ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ৫ লাখ কেজি সুগন্ধি চাল রপ্তানির অনুমতি দিয়েছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিআরআরআই) ব্রি ধান ৫০ নামে একটি সুগন্ধি চাল উদ্ভাবন করে। ২০০৮ সালে এ ধান কৃষকের কাছে আসে ‘বাংলামতি’ নাম নিয়ে। সুগন্ধির মধ্যে বর্তমানে এর উৎপাদনই সবচেয়ে বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *