কামরুল ইসলাম টিটু কে নোয়াখালী পৌরবাসী কাউন্সিলর পদে দেখতে চায়

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালী সদরে করোনা যোদ্ধা,কামরুল ইসলাম টিটু এবার লড়বেন পৌরসভা কাউন্সিলর পদে।১৯৭৩ সালে ২৮ ফেব্রুয়ারি নোয়াখালী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের জেলা কারাগার কোয়ার্টারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি মোঃগোলাম সারোয়ারের সুযোগ্য পুত্র।১৯৯২ সালে এসএসসি ও ১৯৯৫ সালে এইচএসসি পাস করেন।এছাড়াও টিটু ১৯৯০ সালে অরুণ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অবস্থায় স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে অংশ গ্রহণ করেন।পরে তিনি পৌরসভা ১নং ওয়ার্ডে যুবলীগের সভাপতি নিযুক্ত হন।২০০১ সালে জোট সরকারের আমলে শারীরিক নির্যাতন ও মামলা হামলার শিকার হয়। ছোটকাল থেকে কামরুল ইসলাম টিটুর সাংস্কৃতির প্রতি প্রবল আগ্রহ ছিল এবং বিভিন্ন থিয়েটারের সাথে ২ যুগ পার করে দেয়। বর্তমানে তিনি নোয়াখালী জেলার জয়বাংলা থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব রয়েছেন। ২০১৭ সালে নির্বাচনী আসন সদর সুবর্ণচরের ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত উন্নয়নের তথ্যচিত্র,, গল্প নয় সত্যি,, নির্মাণ করেন। যা নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগ ২০১৮ সালে নির্বাচনে ব্যবহার করে।পরে ২০১৮ সালে আওয়ামীলীগ বা, কর্মীদের সংগ্রামী জীবন নিয়ে টেলিফিল্ম,, এখনও সময় আছে,, নির্মাণ করে। ২০২০ সালে করোনা সংক্রমণের শুরুতে নিজস্ব এলাকায় লিফলেট,মাস্ক ও সাবান বিতরণ সহ স্থানীয় জন সাধারণকে উদ্ভুদ্ধ করে রাস্তায় ও বাড়ী বাড়ী গিয়ে এবং করোনায় কর্মহীন অসহায় হতদরিদ্র লোকজনের মাঝে নিজ অর্থ দিয়ে এলাকায় বাড়ী বাড়ী গিয়ে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন। দীর্ঘ দিন সামাজিক উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকায় এলাকাবাসী সন্তুষ্ট হয়ে টিটুকে নোয়াখালী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রস্তাব দিলে পরে তিনি সম্মতি দেয় এবং তার নিজ এলাকাকে একটি পরিকল্পিত ও আর্দশ সমাজ প্রতিষ্ঠায় নিজেকে বিলিয়ে দেয়ার জন্য অঙ্গিকার করেন। এখন নিজ এলাকায় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন কামরুল ইসলাম টিটু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *