অসহায় ফজিরের পরিবার দিশেহারা !

মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, বীরগঞ্জ(দিনাজপুর) নিজস্ব প্রতিনিধি:

বীরগঞ্জে প্রতিপক্ষের বিষ প্রয়োগে পুকুরের মাছ নিধন, অসহায় ফজিরের পরিবার দিশেহারা!

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার পাল্টাপুর ইউনিয়নের রাজিবপুর গ্রামের ফজির উদ্দিনের পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করেছে দুর্বিত্তরা। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ফজির উদ্দিনের সাথে একই গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে মোবাশ্বের হোসেন (৪০), রাসেল (৩২), মৃত আঃ জব্বারের ছেলে মোঃ শাফিয়ার হোসেন (৪৫) , খানসামার ডাঙ্গা পাড়ার খজোমুদ্দিনের ছেলে আলতাফ হোসেন(৪৬) এর সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ রাজিবপুর মৌজার জে,এল,নং-১৭৪, এস,এ,খতিয়ান – ২৫, দাগ নং- ১৬৫,১৬৬ এর .৫৭ একর দাঙ্গা জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ ব্যাপারে ফজির উদ্দিন এক লিখিত বক্তব্যে সাংবাদিকদের জানান, প্রতিদিনের মতো ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ইং সকালে পুকুরপাড়ে গেলে মরা মাছ ভাঁসতে দেখে বিষ প্রয়োগের বিষয়টি বুঝতে পেরে তৎক্ষনাত মৎস্য অফিসের শ্মরণাপন্ন হয়ে ঔষধ প্রয়োগেও কোন কাজে আসেনা তার। কান্নাভরা কন্ঠে তিনি বলেন, অনেক আশা বুকে নিয়ে ধার দেনা করে পুকুরে মাছ চাষ করেছিলেন। আর দুঃস্কৃতিকারীদের বিষ প্রয়োগে তার দুই লক্ষাধিক টাকার প্রায় ২১ মন মাছ ক্ষতি সাধন হওয়ায় থানায় লিখিত অভিযোগ করার কয়েকদিন পেরুলেও কোন প্রকারের প্রতিকার না পেয়ে এখন সে পরিবার পরিজন নিয়ে অনাহারে – অর্ধাহারে দিনাতিপাত করছে। অন্যদিকে স্থানীয় কুচক্রী মহলের যোগসাজসে অসহায় দরিদ্র মৎস্যচাষী ও কৃষক ফজির উদ্দিনের পরিবারের পৈত্রিকসূত্রে প্রাপ্ত উল্লেখিত ভোগদখলীয় জমি দখলের পায়তারা সরূপ আঃ রশিদ কতৃক আদালতে করা ২২/২০২০, ৩৩/২০২০, ১১২ পি/২০২০ মিথ্যা মোকদ্দমায় ফাঁসিয়ে ব্যাপক হয়রানি ও আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয়ে সঠিক বিচারের আশায় ফজির এখন দিশেহারা হয়ে বিচারকের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে। তিনি আরোও উল্লেখ করে বলেন, পূর্বশত্রুতামূলক পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের মতো হীনঅপরাধ করে চিহ্নিত অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে।তাই এই অপরাধীদের খুজে বের করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে না পারলে পরবর্তীতে আরো বড় ধরনের অপরাধ সংগঠিত করবে বলে আশংকায় রয়েছেন কৃষকের পরিবারের সদস্যরা এবং অযথা হয়রানি মূলক মিথ্যা মামলা,হামলা, পায়তারার প্রতিকার সহ ও মাছ নিধনের ব্যাপারে অপরাধীদের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভোগীর পরিবার ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *